ঢাকা, শুক্রবার ১৪ই ডিসেম্বর ২০১৮ , বাংলা - 

গণধর্ষিতা হলো যুবতী, অভিযুক্ত প্রেমিক

প্রতিবেশি ডেস্ক।। ঢাকাপ্রেস২৪.কম

বৃহঃস্পতিবার ৪ঠা অক্টোবর ২০১৮ বিকাল ০৪:১০:২৬

হাওড়ার এক যুবতীকে গণধর্ষণের পর বেধড়ক মারধর করে নদীর ধারে ফেলে দিয়ে গেল তাঁরই প্রেমিক ও তাঁর বন্ধুরা। বুধবার রাতে ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুরে একটি নদীর ধার থেকে সেই যুবতীকে উদ্ধার করে পুলিশ।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, নদীর ধারটি মোটামুটি নির্জনই থাকে। ওই দিন রাতে নদীর ধারের রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় এক যুবতীকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা।

তখনও জ্ঞান ছিল তাঁর। চোখে-মুখে একাধিক আঘাতের চিহ্ন। নির্জন জায়গায় এক যুবতীকে এ ভাবে অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রাই প্রথমে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে ওই যুবতীকে উদ্ধার করে মহাত্মা গাঁধী মেমোরিয়াল মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করে। তরুণীর অবস্থা সঙ্কটজনক বলে জানিয়েছে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার বাসিন্দা ওই যুবতী। দু’দিন আগেই প্রেমিকের সঙ্গে জামশেদপুরে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সঙ্গে ছিল প্রেমিকের কয়েক জন বন্ধুও। অভিযোগ, তাঁরা সকলে মিলে যুবতীকে ধর্ষণের পর ব্যাপক মারধর করে প্রায় অচৈতন্য অবস্থায় নদীর ধারে ফেলে দিয়ে যায়। পুলিশ স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে একটি গণধর্ষণের মামলা রুজু করেছে। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলেও জানিয়েছে তারা।