ঢাকা, মঙ্গলবার ১১ই ডিসেম্বর ২০১৮ , বাংলা - 

অপেক্ষায় ২৫০ পাক জঙ্গি:ভারতীয় সেনা

প্রতিবেশি ডেস্ক।। ঢাকাপ্রেস২৪.কম

রবিবার ৭ই অক্টোবর ২০১৮ সকাল ১১:১২:১৫

রণসজ্জায় সজ্জিত হয়ে অপেক্ষা করছে তাঁরা। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের ইশারা পেলেই ঝাঁপিয়ে পড়বে এদেশের জনগণের উপর। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে অপেক্ষারত জঙ্গিদের নিয়ে এবার মাথায় চিন্তার ঘাম ভারতীয় সেনার। সেনাসূত্রে খবর, প্রায় ২৫০ পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সীমান্ত লাগোয়া অঞ্চলে লুকিয়ে রয়েছে।

সুযোগ বুঝে ভারতে ঢোকার ছক কষছে তাঁরা। তবে আপাতত নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারতীয় সেনার কড়া পাহাড়ায় এদেশে অনুপ্রবেশের সুযোগ পাচ্ছে না তাঁরা। ভারতীয় সেনার তরফে জানানো হয়েছে, এদেশে নাশকতার উদ্দেশ্য নিয়েই তাঁরা অনুপ্রবেশের ছক কষছে।

ভারতীয় সেনার লেফটেন্যান্ট জেনারেল একে ভাট বলছেন, ''পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বিভিন্ন টেরর লঞ্চ প্যাড-এ অপেক্ষা করছে প্রায় ২৫০ জঙ্গি। তবে আমাদের সেনা তাঁদের রুখে দেওয়ার জন্য তৈরি। সামনের এক-দু'মাসের মধ্যে তুষারপাত শুরু হবে। সেই সময় দৃশ্যমানতা কম থাকে।

 আর সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে জঙ্গিরা এদেশে ঢোকার ছক কষছে। সেনার প্রতিটা জওয়ানকে সতর্ক করা হয়েছে। জঙ্গিদের কাজ এত সহজ হবে না।'' সীমান্ত লাগোয়া অঞ্চলে এই মুহূর্তে প্রায় ৩০০ জঙ্গি নাশকতার ছক কষছে বলে সেনাসূত্রে খবর। তাঁদের ধরপাকরের জন্য ভারতীয় সেনা দিন-রাত তল্লাশি চালাচ্ছে বলেও জানান ভাট।

ইতিমধ্যে সিআরপিএফ ও জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের সঙ্গ একাধিক মিটিং করেছে ভারতীয় সেনা। সীমান্ত লাগোয় অঞ্চলে জঙ্গিদের কার্ষকলাপ নিয়ে সতর্ক করা হয়েছে স্থানীয় প্রশাসনকেও। জেনারেল ভাট বলছিলেন, ''লোকসভা নির্বাচনের আগে বড়সড় নাশকতার ছক কষতে পারে জঙ্গি সংগঠনগুলো।

 তাই সেনা ও পুলিশে হাই-অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। উত্তর কাশ্মীরের মানুষ জঙ্গিদমনে সেনার সঙ্গে সর্বোতভাবে সাহায্য করেছে। তবে দক্ষিণ কাশ্মীরে এখনও অশান্তি রয়েছে। আশা করব দক্ষিণের মানুষ উত্তর কাশ্মীরকে দেখে সহযোগিতার পাঠ শিখবে।''