ঢাকা, শনিবার ১৬ই নভেম্বর ২০১৯ , বাংলা - 

কিশোরীকে ধর্ষণ প্রাণ কোম্পানির ৩ কর্মীর

জেলা সংবাদদাতা।।ঢাকাপ্রেস২৪.কম

বুধবার ৬ই নভেম্বর ২০১৯ সকাল ১০:৫৬:১৪

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলায় নানার বাড়ি বেড়াতে এসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। গেল সোমবার সকালে বাসাইল গোবিন্দ স্কুল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এরপর গতকাল মঙ্গলবার রাতে কিশোরীর দাদা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলার পর রাতেই তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার পোড়াবাড়ী গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (২০), একই উপজেলার খারজানা এলাকার মানিক মিয়ার ছেলে আমিরুল ইসলাম (২০) ও রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলার খারাগাছী এলাকার আক্তার আলীর ছেলে মিলন মিয়া (২২)।গ্রেপ্তারকৃতরা প্রাণ কোম্পানির বাসাইল ও সখীপুর উপজেলার মার্কেটিং বিভাগের দায়িত্বে রয়েছেন।

পুলিশ জানায়, গেল কয়েক দিন আগে পার্শ্ববর্তী উপজেলা সখীপুরের চাকদহ এলাকা থেকে বাসাইল উপজেলার যৌতকী গ্রামে নানার বাড়ি বেড়াতে আসে ওই কিশোরী। সোমবার সকালে বাড়ি থেকে বের হলে গ্রেপ্তারকৃত তিনজন তাকে ফুসলিয়ে বাসাইল গোবিন্দ স্কুল পাড়ায় তাদের মেসে নিয়ে যায়। সেখানে পালাক্রমে কিশোরীকে তারা ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরী গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই মেস থেকে পালিয়ে আসে। তাকে বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। মামলা হওয়ার পর পুলিশ গিয়ে তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

টাঙ্গাইলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি সখীপুর সার্কেল) আব্দুল মতিন গণমাধ্যমকে বলেন, এ ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

এ ব্যাপারে বাসাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) এসএম তুহিন আলী বলেন, এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে কিশোরীর দাদা বাদী হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।