ঢাকা, শুক্রবার ৫ই জুন ২০২০ , বাংলা - 

মো’কা’বেলায় সফলের পথে জার্মানি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।ঢাকাপ্রেস২৪.কম

সোমবার ৬ই এপ্রিল ২০২০ সন্ধ্যা ০৭:১৬:৩৫

জার্মানিতে এখন পর্যন্ত ৯ লাখ ১৮ হাজার ৪৬০ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যেখানে ইতালিতে এই সংখ্যা সাড়ে ছয় লাখের কিছু বেশি। এছাড়া স্পেনে ৩ লাখ ৫৫ হাজার। লন্ডন স্কুল অব হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিনের অধ্যাপক চিকিৎসক লিয়াম স্মিথ বলেন, করোনায় মৃ’ত্যুর হার একেক দেশে একেক রকম হওয়ার বেশ কিছু কা’রণ আছে।

তবে অন্যতম কা’রণ হচ্ছে, কে কত বেশি পরীক্ষা করছে। বেশি পরীক্ষার কা’রণে সং’ক্রমিত ব্যক্তির মাধ্যমে অন্যদের মধ্যে ভাইরাসটি ছড়াতে পারছে না। জার্মানি জনসংখ্যার তুলনায় একেবারে শুরু থেকে ব্যাপক সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা করে আসছে। জার্মানির সরকারি স্বাস্থ্য সংস্থা রবার্ট কোচ ইনস্টিটিউটের প্রেসিডেন্ট লোথার উইলার বলেছেন, জার্মানির ল্যাবগুলোতে বর্তমানে প্রতি সপ্তাহে অন্তত ১ লাখ ৬০ হাজার মানুষের পরীক্ষা করার সক্ষমতা আছে।

চীনের উহানে গত ডিসেম্বরে করোনাভাইরাসের বিস্তার শুরু হওয়ার পর জার্মানিই প্রথম দেশ হিসেবে স্থানীয়ভাবে করোনা পরীক্ষার কিট তৈরি করে। অত্যন্ত স্বল্প সময়ের মধ্যে দেশটির বেসরকারি স্বাস্থ্য সংস্থা ও কোম্পানিগুলোকে এই কিট উৎপাদনের অনুমতি দেয়া হয়।

তারা দেশটির জনসংখ্যার চিত্র মাথায় রেখে এই কিটের গণউৎপাদনে যায়। এমনকি দেশটির একটি মাত্র কোম্পানিই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ১৪ লাখের বেশি কিট সরবরাহ করে। যা পরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা আ’ক্রা’ন্ত দেশগুলোতে পাঠিয়ে দেয়।

এছাড়া ইতালি এবং স্পেনের তুলনায় জার্মানিতে আইসিউ শ’য্যার সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ বেশি আছে। যে কা’রণে দেশটির হাস’পাতালগুলো রো’গীদের চিকি’ৎসা সেবা দিতে গিয়ে ভে’ঙে পড়েনি; যা ঘটেছে স্পেন এবং ইতালিতে। জার্মানির হাস’পাতাল পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা ডিকেজি বলছে, জার্মানিতে এক লাখ মানুষের জন্য ক্রিটিক্যাল কেয়ার শ’য্যা আছে ২৯.২ টি।

অন্যদিকে, ইতালির এই সংখ্যা মাত্র সাড়ে ১২টি। যুক্তরাষ্ট্রে আছে ৩৪ দশমিক ২টি। কিন্তু জার্মানির এই শয্যাগুলোতে বর্তমানে রো’গী আছে ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ। এর অর্থ হচ্ছে করোনায় গু’রু’তর অ’সুস্থ রো’গীদের জন্য জার্মানির এই শ’য্যা পর্যাপ্ত। সূত্র-ইউএস নিউজ।